The news is by your side.

করোনায়ও নেই,বাজেটেও নেই, রণাঙ্গনের বীর মুক্তিযোদ্ধা, ভরসা শেখ হাসিনা

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

চেতনায় ডেস্কঃ আমাদের স্বাধীনতার স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর নির্দেশে মুক্তিযুদ্ধে বিজয় অর্জনের মুল কারিগর বীর মুক্তিযোদ্ধা, বলা যায় মুক্তিযোদ্ধারা বাংলাদেশের স্রষ্টা, একাত্তরের টগবগে সেই তরুণ-যুবক মধ্য বয়সী মুক্তিযোদ্ধারা আজ বয়সের ভারে কর্মহীন, মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি চারন করে সময় কাটাচ্ছেন, বাংলাদেশের অধিকাংশ মুক্তিযোদ্ধা আর্থিকভাবে অসচ্ছল, বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার দেয় ভাতাকে অবলম্বন করে বেচে আছে। মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয় থেকে মুক্তিযোদ্ধাদের বিভিন্ন ধরনের সুযোগ সুবিধা প্রদানের আশ্বাস দেওয়া হয়, তার মধ্যে চিকিৎসা, বাড়ি নির্মাণ, সুদ বিহীন ব্যাঙ্ক ঋণ, বিদ্যুৎ, গ্যাস, পৌর ট্যাক্স মওকুফ সহ নানা ধরনের আশ্বাস দেওয়া হয়, দুঃখজনক হলেও সত্যি সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসা সুবিধা ছাড়া আর কোন সুবিধা মুক্তিযোদ্ধারা ভোগ করে নাই, তবে সরকারী হাসপাতালে মুক্তিযোদ্ধাদের চিকিৎসা নিতে যে হয়রানীর মধ্যে পড়তে হয় তাহা আর বলতে।

বর্তমানে সারা দেশে করোনা ভাইরাস নিয়ে যে আতঙ্ক বিরাজ করছে এবং বয়স্ক লোকজন যেভাবে আক্রান্ত হচ্ছে এবং মারা যাচ্ছে, তাতে করে দিন দিন মুক্তিযোদ্ধারা করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা যাচ্ছে, পাচ্ছে না কোন সুচিকিৎসা, এই বিষয় মুক্তিযোদ্ধাদের নিয়ে বাংলাদেশের স্বাস্থ্য অধিদপ্তর কখনও ভাবেন নাই।

আমাদের সমাজে এখনও এক শ্রেণির মানুষ আছে যারা বাংলাদেশের স্বাধীনতার পক্ষে ছিলনা, মুক্তিযোদ্ধাদের কথায় কথায় কটাক্ষ করে থাকে, মুক্তিযোদ্ধাদের নাম শুনলে তাদের গাঁ জ্বালা পুড়া শুরু হয়,তারা সমাজের বিভিন্ন ক্ষেত্রে প্রভাব প্রতিপত্তি নিয়ে বিচরন করছে। মুক্তিযোদ্ধাদের মাসিক ভাতার দাবী ছিল নুন্যতম ত্রিশ হাজার টাঁকা আর বাড়ি নির্মাণ করা, যাতে যে কয়জন মুক্তিযোদ্ধা বেচে আছে তারা এবং মৃত্যু মুক্তিযোদ্ধাদের পরিবার পরিজন সুখে শান্তিতে থাকতে পারে। এই বিষয় ঘোষিত বাজেটে কোন উল্ল্যেখ না থাকলেও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কিছু একটা করবেন বলে মুক্তিযোদ্ধারা বিশ্বাস করে। সম্পাদক, চেতনায় একাত্তর

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

Comments are closed.