The news is by your side.

খালি পেটে সিদ্ধ ডিম খেলে কী হয়?

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

প্রশ্নটির জন্য ধন্যবাদ। প্রতিদিন সকালে খালি পেটে ডিম খাওয়াই যায়। কোনো সমস্যা নেই এতে, বরং উপকারিতাই পাওয়া যায়। ডিমের বিভিন্ন পদগুলির মধ্যে সবচাইতে বেশি স্বাস্থ্যকর হলো সেদ্ধ এবং বেকড, কারণ কোনরকম তেল মশলা থাকে না এতে। সেই কারণে রোজ খালি পেটে সেদ্ধ ডিম অবশ্যই খেতে পারেন।

খালি পেটে সিদ্ধ ডিম খেলে কী হয়?

ওজন হ্রাস পায়: সকালবেলায় ডিম খাওয়া মাত্র পেট ভরে যায় এবং অনেকক্ষণ পর্যন্ত ক্ষিদে পায় না। সেই কারণে চিপস, ভাজাভুজি খেয়ে পেট ভরানোর প্রয়োজন পড়ে না। ফলে ওজন বাড়ার কোনও আশঙ্কাও থাকে না। সম্প্রতি প্রকাশিত এক গবেষণায় দেখা গেছে যাঁরা সকাল সকাল শরীরের ক্যালরির চাহিদা পূরণ করে দেন, তাঁদের সারাদিনে বেশি বেশি করে ক্যালরিসমৃদ্ধ খাবার খাওয়ার ইচ্ছা থাকে না। ফলে ওজন নিয়ন্ত্রণে থাকে। এমনিতেও ডিমে যে পরিমাণ ক্যালরি থাকে তা শরীরের প্রয়োজন মিটিয়ে দেয়, সেজন্য দেহে চর্বি জমার সুযোগই থাকে না।[1]

স্ট্রেসের প্রকোপ কমে: ডিমে উপস্থিত প্রায় নয় রকমের অ্যামাইনো অ্যাসিড মস্তিষ্কে সেরাটোনিন নামক বিশেষ একপ্রকার হরমোনের ক্ষরণ বাড়িয়ে দেয়, এই হরমোনটি স্ট্রেস এবং অ্যাংজাইটি কমিয়ে নিমেষে মন ভাল করে দিতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে। সেইজন্য সকালে খালি পেটে ডিমসেদ্ধ খেলে সারাদিন মনটা বেশ ঝরঝরে থাকবে।

এনার্জির ঘাটতি দূর করে: খালি পেটে ডিমসেদ্ধ খেয়ে নিলে শরীরের ক্লান্তিভাব দূর হওয়ার সঙ্গেই কর্মক্ষমতাও বৃদ্ধি পায়। ডিমে উপস্থিত থাকা স্বাস্থ্যকর ফ্যাট এবং অন্যান্য পুষ্টিকর উপাদান দেহের প্রয়োজনীয় জ্বালানির চাহিদা পূরণ করে।[2]

প্রোটিনের ঘাটতি দূর করে: ডিমে উপস্থিত অ্যালবুমিন নামক একধরণের প্রোটিন পেশির গঠনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। তাই এনার্জি বৃদ্ধির পাশাপাশি শরীরের অভ্যন্তরীণ ক্ষমতা বৃদ্ধির জন্য সকাল সকাল খালি পেটে ডিমসেদ্ধ খাওয়া খুবই উপকারী।

চুল পড়া হ্রাস করে: প্রতিদিন প্রাতরাশে একটা করে ডিম খাওয়া শুরু করলে অবশ্যই উপকার পাবেন। ডিমের মধ্যে উপস্থিত ভিটামিন এ ও ই এক্ষেত্রে বিশেষ ভূমিকা পালন করে। এই দু’টি উপাদান চুলের গোড়ার পুষ্টির ঘাটতি দূর করে, ফলে চুল পড়ার হার কমতে থাকে।

তবে যে খাবার যতোই স্বাস্থ্যকর হোক না কেন, অতিরিক্ত গ্রহণ মোটেই স্বাস্থ্যকর নয়। সেই কারণে বলবো পরিমাণ বুঝে খান, সুস্থ থাকুন।

তমালিকা ঘোষাল ব্যানার্জী, প্রাক্তন উচ্চ বিদ্যালয় গণিত শিক্ষিকা

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

Comments are closed.