The news is by your side.

ঘৃণিত ২১শে আগস্ট,মিরকাদিম পৌর আওয়ামী লীগের আলোচনা ও দোয়া মাহফিল

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

চেতনায় ডেস্কঃ ২১আগস্ট ২০২০, আজ শুক্রবার ইতিহাসের ভয়াবহ এবং ঘৃণিত গ্রেনেড হামলা দিবস পালন উপলক্ষে মিরকাদিম পৌর আওয়ামী লীগের উদ্যোগে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল মিরকাদিম পৌরসভা ভবনের হল রুমে অনুষ্ঠিত হয়।পৌর আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহসভাপতি আব্দুল বাতেন সেনটুর সভাপতিত্বে উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত থাকেন পৌর মেয়র শহিদুল ইয়ালাম শাহীন, অনুষ্ঠানের প্রধান আলোচক মুন্সীগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা কামাল উদ্দিন আহাম্মেদ, আরও উপস্থিত থাকেন মিরকাদিম পৌর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও ০২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলার আবু তাহের, ০৪ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি ও কাউন্সিলার আব্দুল মজিদ, মহিলা আওয়ামী লীগ নেত্রী ও কাউন্সিলার নুর জাহান শিল্পী, মিরকাদিম পৌর কৃষক লীগের সভাপতি হাজি সালাউদ্দিন দেওয়ান, মিরকাদিম পৌর আওয়ামী লীগ নেতা আবুল বাসার, ৩নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি শাহ্‌ মোঃ আলী, বিল্লাল হোসেন, আলমগির দেওয়ান, সেলিম সরদার সহ মিরকাদিম পৌর আওয়ামী লিগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।সভার শুরুতে ২১শে আগস্ট গ্রেনেড হামলায় নিহত ও আহতদের জন্য দোয়া করা হয় এবং তাদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে দাড়িয়ে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে মেয়র শহিদুল ইসলাম শাহীন বলেন ১৫ই আগস্ট বঙ্গবন্ধুর স্ব-পরিবারে হত্যা এবং জামাত- বিএনপি জোট সরকার আমলে ১৭ আগস্ট ৬৩ জেলায় সিরিজ বোমা হামলা এবং ২১শে আগস্ট গ্রেনেড হামলা একই সুত্রে গাঁথা, ১৫ই ঘাতকরা বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করতে পেরেছিলেন কিন্তু ২১শে আগস্ট ঘাতকরা বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনাকে হত্যার মাধ্যমে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগকে ধ্বংস করতে চেয়েছিল, আওয়ামী নেতারা মানব ডাল রচনা করে প্রিয় নেত্রিকে রক্ষা করে, এই গ্রেনেড হামলায় ২৪জন নেতা কর্মী মারা যান আর ৪০০ নেতা কর্মী গুরুতরভাবে আহত হন আমি নিহতদের আত্মার মাগফেরা কামনা এবং আহতদের সুস্থতা কমনা করছি।

প্রধান আলোচক কামাল উদ্দিন আহাম্মেদ বলেন ২১শে আগস্ট গ্রেনেড হামলায় তারেক,খালেদা জিয়া জড়িত যেমন ১৫ই আগস্ট বঙ্গবন্ধুর স্ব-পরিবারে হত্যায় জড়িত ছিল জিয়া।আমরা দাবি করছি অতি সত্তর বিচার প্রক্রিয়া শেষ করে রায় কার্যকর করা হোক।তিনি আরও যারা বঙ্গবন্ধু কন্যার নির্দেশ অমান্য করে বিভিন্ন নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েছিলেন, আওয়ামী লীগের প্রার্থীকে পরাজিত করে বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনাকে হেয়প্রতিপন্ন করতে চেয়েছিলেন, তাদের যেন কোনক্রমে আওয়ামী লীগের কোন স্তরের নির্বাচনে প্রার্থী করা না হয়, কেদ্র থেকে ঘোষিত তাদের বহিষ্কারাদেশ কার্যকর করা হোক।এই বিষয় মুন্সীগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি ও সাধারন সম্পাদকের সদয় পদক্ষেপ গ্রহনের বিনিত অনুরোধ করা হয়।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

Comments are closed.