The news is by your side.

পিঁয়াজি রাজনীতি।।বিএনপির আন্দোলন,পিয়াজের বদলে পাবে মূলা

0

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

শরমিতা লায়লা প্রমিঃ পিয়াজের লাগামহীন মুল্যবৃদ্ধির কারনে সাধারণ মানুষ পিয়াজ কিনতে নাভিশ্বাস, যদিও পিয়াজ একটি নিত্য প্রয়োজনীয় আনাজ, তারপরও পিয়াজ ছাড়া রান্না হয় না, তা নয় কিন্তু, বাঁচার মুল অবলম্বন কিন্তু পিয়াজ নয়। তবে পিয়াজ আমাদের বাঙালী রসনা বিলাসীদের কাছে একটি তৃপ্তিকর আনাজ, আমাদের রান্নাঘরে পিয়াজ না থাকলে রাঁধুনিদের রান্নাই হয় না।

অথচ অনেক হিন্দু ধর্মের লোকজন পিয়াজ রান্নায় ব্যবহার করেন না। বলা চলে পিয়াজ তারা খান না। তাই বলে তাদের রান্না করা খাবার অতৃপ্তিকর নয়।তবে বর্তমানে পিয়াজের অসহনীয় মূল্যবৃদ্ধি মেনে নিতে কষ্ট হয়।৪০ টাকার পিয়াজ দুই মাসে ২৪০ টাকা ভাবতে গেলেও আঁতকে উঠতে হয়।সরকার এই দায় এড়াতে পারে না। প্রস্ন একটাই, কি করছে সরকার? কি করছে বানিজ্য মন্ত্রণালয়? কি করছে সংশ্লিষ্ট সংস্থা? জনমনে প্রস্ন জাগতেই পারে-কিছু অসৎ ব্যবসায়ী আর সুবিধাভোগীদের সুবিধা দিতে এবং নিতে একশ্রেণীর দুর্নীতিবাজ আমলাচক্র রাজনৈতিক ফায়দা হাসিল এবং সরকারকে বেকায়দায় ফেলতে বি এন পি- জামাতি এবং আওয়ামী লীগ বিরোধী আমলা, কর্মকর্তা আর ব্যবসায়ী সিন্ডিকেট চক্রান্ত এবং ষড়যন্ত্রমুলকভাবে পিয়াজের লাগামহীন মুল্য বৃদ্ধি ঘটিয়ে আওয়ামী লীগ সরকার আর শেখ হাসিনার ভাবমূর্তি নষ্ট করছে। তবে এখানেও প্রশ্ন? বানিজ্যমন্ত্রী টিপু মুন্সি কি তাদের জালে জড়িয়ে পরছে,তার মুন্সীআনার ছাপ দেখা গেল না, পিয়াজের বাজার সহনীয় পর্যায় আনতে ব্যর্থ হলেন, তা না হলে সে কেন পিয়াজের বিষয় সিরিয়াস হলেন না, কেন সে অসংলগ্ন কথা বলছেন, তারতো দায় এড়ানোর কথা নয়।

বানিজ্যমন্ত্রির উদাসীনতার জন্য বিরোধী রাজনৈতিকদল বি এন পি- জামাত আন্দোলনে নামলেন, পিয়াজের দাম যতই বাড়ছে তারা ততই আনন্দ পাচ্ছেন, জনগনের দুঃখে তারা আনন্দিত হবেন এতাই স্বাভাবিক। কারন ভারতে বন্যা পিয়াজ উৎপন্ন কম আর রফতানি বন্ধ থাকায় বাংলাদেশে পিয়াজের দাম বেড়েছে, আর বি এন পি আন্দোলনে নামার পথ খুঁজে পেয়েছে।বি এন পির আন্দোলনের ডাক, আমার মনে পরে গেল কৃষক আর গাধার কাহিনী, কৃষক মুলার ডগা জুলিয়ে যেমন গাধাকে চালিয়েছে, তেমনি বি এন পি জামাতি আন্দোলনের ফলাফল কি হবে বি এন পি কি পিয়াজের পরিবর্তে মুলা পাবে?

কারন ইতিমধ্যে বাংলাদেশের অনেক সুশীল আর গবেষক বলতে শুরু করেছে পিয়াজের পরিবর্তে মুলা দিয়ে রান্না খাবার খুবই মজাদার, ধরা যাক পিয়াজু বরার পরিবর্তে মুলাজু বরা, যেমন একবার কালা লম্বা বেগুণের দাম বেড়ে যাওয়ায় অনেকে রোজার সময় বেগুণ দিয়ে বেগুনী না বানিয়ে পেপে দিয়ে বেগুনী বানায় এবং নামও হয় পাদানি, তাই রাজনৈতিক বিশ্লেষকগণ মনে করে পিয়াজু আন্দোলনে বি এন পি- জামাত পিয়াজের পরিবর্তে মুলা পেতে পারে যার পরিণতি বেগুনীর পরিবর্তে পাদানি পাওয়া।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

Leave A Reply

Your email address will not be published.