The news is by your side.

বাদ পড়া ৪৭০০ বীর মুক্তিযোদ্ধার নাম আবার তালিকায় যুক্ত হলো

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

চেতনায় ডেস্কঃ ভাতা পাওয়া সব বীর মুক্তিযোদ্ধার নাম গত অক্টোবরে একটি সফটওয়্যারে (এমআইএস) তোলা হয়। জাতীয় পরিচয়পত্রসহ অন্যান্য তথ্য যাচাই করে ভাতা পাওয়া ১ লাখ ৯২ হাজার বীর মুক্তিযোদ্ধার নাম সফটওয়্যারে যুক্ত করার পর সংখ্যাটি ১ লাখ ৭১ হাজার হয়ে যায়। অবহেলা বা করণিক ভুলের কারণে বাদ পড়া ২১ হাজার জনের মধ্যে ৪ হাজার ৭০০ জনের নাম আবার সফটওয়্যারে যুক্ত করা হয়েছে। সংখ্যাটি আরও বাড়বে বলে মনে করছে মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয়।

বাদ পড়া ৪৭০০ বীর মুক্তিযোদ্ধার নাম আবার তালিকায় যুক্ত হলো
বাদ পড়া ৪৭০০ বীর মুক্তিযোদ্ধার নাম আবার তালিকায় যুক্ত হলো

অবশ্য এখনো এমআইএসে যুক্ত হয়নি আরও প্রায় সাড়ে ১৬ হাজার মুক্তিযোদ্ধাদের নাম।যাঁদের নাম বাদ পড়েছিল, তাঁদের ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে আবেদন করার সময় বেঁধে দেয় মন্ত্রণালয়। মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত তিন কর্মকর্তা জানান, আগে জেলা প্রশাসকের কার্যালয় থেকে পাঠানো তালিকার ভিত্তিতে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের নামে মাসিক ভাতা পাঠানো হতো। কিন্তু গত অক্টোবর ও নভেম্বরের ভাতা পাঠাতে গিয়ে দেখা যায়, ২১ হাজার মুক্তিযোদ্ধার নাম এমআইএসে নেই। ওই তালিকা প্রকাশের পর অনেকেই মন্ত্রণালয়ে অভিযোগ নিয়ে আসেন।মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক বলেন, ‘অনেকেই কাগজপত্র সঠিকভাবে জমা দেননি, মাঠপর্যায়ের কর্মকর্তারাও তা ঠিকমতো দেখেননি। এ জন্য আমরা গণবিজ্ঞপ্তি দিয়েছি। অনেকের নাম এখনো যুক্ত হয়নি। ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত সময় আছে। এরপর বোঝা যাবে বাদ পড়া বীর মুক্তিযোদ্ধাদের মধ্যে কতজন যুক্ত হলেন।

’মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা বলছেন, যাঁদের নাম বাদ পড়েছে, তাঁদের কারও কারও সনদ জাল বা তথ্য ত্রুটিপূর্ণ। তবে করণিক ভুলের কারণে যাঁদের নাম বাদ পড়েছে, এমআইএসে নাম অন্তর্ভুক্ত করা বা তথ্য সংশোধনের জন্য সংশ্লিষ্ট জেলা ও উপজেলার সমাজসেবা কর্মকর্তা, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও জেলা প্রশাসকের কার্যালয় থেকে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সহযোগিতা দেওয়া হচ্ছে বলে মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা জানান। এখন থেকে এমআইএসের তথ্যের ভিত্তিতেই বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মানী ভাতা, পরিচিতি নম্বর, ডিজিটাল সনদ, স্মার্ট আইডি কার্ড দেওয়াসহ বিভিন্ন কল্যাণমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। ফলে সব বীর মুক্তিযোদ্ধার নাম এমআইএসে অন্তর্ভুক্তি নিশ্চিত করতে হবে। এমআইএসে থাকা তালিকা মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে সবার জন্য উন্মুক্ত করা হয়েছে। বীর মুক্তিযোদ্ধাদের যেকোনো তথ্য, ছবি সেখানে দেখা যাবে।মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা জানান, ইতিমধ্যে অধিকাংশ বীর মুক্তিযোদ্ধার নাম এমআইএসে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। তবে তাঁরা গণবিজ্ঞপ্তি দিয়ে এমআইএসে এ অন্তর্ভুক্ত হওয়ার জন্য দিকনির্দেশনা দিয়েছেন। এখন থেকে এমআইএসের তথ্যের ভিত্তিতেই বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মানী ভাতা, পরিচিতি নম্বর, ডিজিটাল সনদ, স্মার্ট আইডি কার্ড দেওয়াসহ বিভিন্ন কল্যাণমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

Comments are closed.