The news is by your side.

মাস্ক না পরে রাস্তাঘাট,হাট বাজারে বাহির হলে বেত্রাঘাত ও জরিমানা করা হউক

0

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

চেতনায় ডেস্কঃ প্রায় দুই মাস সাধারন ছুটি বা লক ডাউনের পরও কিছু মানুষের অসহযোগিতা, অসৎ রাজনীতি, বিভিন্ন ধরণের গুজব রটনার কারনে ভয়াবহ করোনা ভাইরাস নিয়ন্ত্রন করা যায় নাই, বর্তমানে প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রোধে মাস্ক পরার ওপর জোর দেওয়া হচ্ছে বিশ্বজুড়ে। যেহেতু এ ভাইরাস হাঁচি কাশির মাধ্যমে ছড়ায়, তাই মাস্ক পরলে তা একজন থেকে আরেকজনে সংক্রমিত হওয়ার আশঙ্কা অনেকটাই কমে যায়।বাংলাদেশেও মাস্ক পরা নিয়ে সরকারীভাবে কঠোর নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। সরকারের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, যে কোনো অবস্থাতেই বাইরে চলাচলের সময় মাস্ক পরিধানসহ অন্যান্য স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে। অন্যথায় নির্দেশ অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

মাস্ক না পরে রাস্তাঘাট,হাট বাজারে বাহির হলে বেত্রাঘাত ও জরিমানা করা হউক

৩১ মে থেকে ১৫ জুন পর্যন্ত অফিস, গণপরিবহনসহ অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড কীভাবে পরিচালিত হবে এবং কোন ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা বহাল থাকবে সেই বিষয়ে নির্দেশনা দিয়ে বৃহস্পতিবার মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে। প্রজ্ঞাপনটিতে মাস্ক পরার বাধ্যবাধকতার কথা জানানো হয়েছে।

তবে দেশের ৮০% জন মানুষ মনে করে আইনটি কঠোর হতে হবে, মাস্ক না পরা ব্যাক্তির মুখ না দেখে তার পাছায় সাথে সাথে দুই বার বেত্রাঘাত করা এবং জেল- জরিমানার সাঁজা দিতে হবে। নচেৎ এই অবাধ্য লোকগুলোকে মাস্ক পরা বাধ্য করা যাবে না। আমাদের গ্রাম বাংলায় একটা কথার প্রচলন আছে, যেমন চাকা, তেমন মুগুর।।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

Leave A Reply

Your email address will not be published.