The news is by your side.

মুন্সীগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগ সহ-সভাপতি মোঃ আনিছ উজ্জামান এর বাসায় ডাকাতি-জেলা আওয়ামী লীগের তীব্র ক্ষোভ, গ্রেফতার দাবি

0

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

চেতনায় ডেস্কঃ ৩১শে মে২০২০।। মুন্সীগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগ সহ সভাপতি, সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান, সাবেক জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডের কমান্ডার, একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধকালিন সময় একাত্তরের রণাঙ্গনের মুন্সীগঞ্জ থানা মুক্তিযুদ্ধকালিন কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ আনিছ উজ্জামান আনিছ এর বাসায় ডাকাত দল মারাত্মক অস্ত্র নিয়ে রাত ০২ টা থেকে রাত ০৪ টা পর্যন্ত দীর্ঘ দুই ঘণ্টা পরিকল্পিতভাবে তার বড় ছেলে জেলা যুব লীগের সাবেক সভাপতি রাজিব এবং ছোট ছেলে জেলা মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ডের কমান্ডার রাজনকে বেঁধে, মারধর করে এবং মোঃ আনিছ উজ্জামান আনিছকে অস্ত্রের মুখে গৃহবন্ধি করে ডাকাত দল দুই ঘণ্টাব্যাপী আলমারি সহ বিভিন্ন স্থানে রক্ষিত প্রায় শতাধিক ভরি স্বর্ণালঙ্কার এবং প্রায় পাঁচ লক্ষাধিক টাকা নিয়ে বীরদর্পে বাড়ী ত্যাগ করে চলে যায়। মুন্সীগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগ মনে করে এটা একটা পরিকল্পিত দুর্ধর্ষ ডাকতি, ১০/১২ জনের ডাকাত দলের কিছু সদস্য এই এলাকায় বসবাস করে যাদের মোঃ আনিছ উজ্জামান আনিছের বাড়ি সম্পর্কে ধারনা আছে এবং কিছু ডাকাত দলের সদস্য বাহির থেকে আনা হয়েছে যাদের ডাকাতির পূর্ব অভিজ্ঞটা আছে।

এই বিষয় জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান, বঙ্গবন্ধুর চীফ সিকিউরিটি অফিসার ও মোঃ আনিছ উজ্জামান আনিছ এর বড় ভাই আলহাজ্ব মোঃ মহিউদ্দিন বলেন আমাদের পরিবারটি আওয়ামী লীগ পরিবার হিসাবে সুপরিচিত, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু এবং বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার প্রতি অবিচল আস্থা ও বিশ্বাস রেখে তাদের অনুসারি হিসাবে আমরা জনগনের কল্ল্যানে রাজনীতি করছি।আমাদেরকে রাজনৈতিক, সামাজিকভাবে হেয় প্রতিপন্ন করতেই এই ডাকাতি সংগঠিত করা হয়েছে বলে আমি মনে করি। আমি আইন শৃঙ্খলা রক্ষাবাহিনীকে অনুরোধ করবো যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহনের মাধ্যমে এই ডাকাতির রহস্য উৎঘাটন করা হোক এবং ডাকাত দলের সদস্যদের গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনা হোক।

এই বিষয় আরও ক্ষোভ প্রকাশ করে ডাকাত দলকে গ্রেফতারের দাবি জানান জেলা আওয়ামী লীগ সাধারন সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব শেখ মোঃ লুতফর রহমান, যুগ্ম সাধারন সম্পাদক অ্যাড. সোহানা তাহমিনা, সাংগঠনিক সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা কামাল উদ্দিন আহাম্মেদ, মিরকাদিম পৌরসভা মেয়র শহিদুল ইসলাম শাহীন, মিরকাদিম পৌর মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা খন্দকার দেলোয়ার হোসেন মিলন, সাবেক জেলা শ্রমিক লীগ সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা এ টি এম দেলোয়ার হোসেন, মিরকাদিম পৌর নাগরিক কমিটি, চেতনায় একাত্তরসহ বিভিন্ন সংগঠন ও ব্যক্তিগন, ……………. সম্পাদক, চেতনায় একাত্তর

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

Leave A Reply

Your email address will not be published.