The news is by your side.

মিরকাদিম কি করোনার হট স্পটে পরিনত হচ্ছে, মেয়রকে সতর্ক পদক্ষেপ নিতে হবে, নাগরিক কমিটি

0

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

নাগরিক ডেস্কঃ মিরকাদিম পৌরসভা একটি জনবহুল এলাকা, কৃষি জমি নেই বললেই চলে, প্রায় সব এলাকাই ব্যবসায়ী ও আবাসিক এলাকা হিসাবে পরিচিত, ১০.৩২  বর্গ কিমি এলাকায় প্রতি বর্গমাইলে জনসংখ্যার ঘনত্ব দুই হাজার এর অধিক প্রায় পনর হাজার পরিবারে জনসংখ্যা প্রায় ৬০ হাজার, এই পৌরসভার ঐতিহাসিক কমলা ঘাট বন্দর ( মিরকাদিম বন্দর ) রিকাবি বাজার, মিরকাদিম হাট সহ বহু ছোট ছোট বাজার অবস্থিত। মিরকাদিম একটি শিল্প এলাকা হিসাবে পরিচিত এই পৌর এলাকায় বহু চাউল কল, তেল কল, ডাইল কল, ময়দার কল আছে। তাই পরিজাত শ্রমিকের সংখ্যাও কম নয়। বাজার গুলোতে নিত্যদিন বহু লোকজনের আনাগুনা হয়, পার্শ্ববর্তী অনেক ইউনিয়ন থেকে বহু ক্রেতা এই বাজার থেকে নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র খরিদ করে থাকে।

বিগত প্রায় তিন মাস যাবত সারা বিশ্বের মত বাংলাদেশও করোনা ভাইরাস মহামারি থেকে মুক্ত নয়, এই ভাইরাস থেকে জনগণকে রক্ষায় সরকার প্রায় দুই মাস সাধারন ছুটি দিয়ে লক ডাউনের মাধ্যমে জনগণকে নিজ নিজ ঘরে রাখার চেষ্টা করেছে, কর্মহীন মানুষদের খাদ্যসামগ্রী সরবরাহ করেছে অনেকে মেনেছে তবে কিছু লোককে ঘরে রাখা যায় নাই, তাদের মাধ্যমে করোনা ভাইরাস বিস্তার লাভ করে।

মিরকাদিম পৌরসভা মেয়র শহিদুল ইসলাম শাহীন পৌর এলাকার লক ডাউনে থাকা মানুষদের মাঝে বিভিন্নভাবে সরকারি বরাদ্ধ বিতরনের পরও নিজ অর্থে নিত্য প্রয়োজনীয় খাদ্য সামগ্রী বিতরন করেছেন, এমন কি গত ঈদুল ফিতরে সাড়ে বার হাজার পরিবারের মাঝে পোলার চাউল, সেমাই, চিনিসহ বার ধরনের খাদ্য সামগ্রির প্যাকেট ঈদ উপহার হিসাবে প্রদান করেছেন।

১লা জুন থেকে সাধারন ছুটি শেষে লক ডাউন প্রত্যাহার করা হয়, এরই মধ্যে স্বাস্থ্য বিধি মেনে সরকারি সিদ্ধান্ত মতে দোকান- বাজার খুলে দেওয়া হয়েছে, যানবাহন চলাচল করছে, লোকজনের যাওয়া আসা বাড়ছে, তবে অনেক দোকানদার আর চলাচলকারী লোকজন স্বাস্থ্য বিধি মানছে না, মুখে মাস্ক পরছে না, ব্যক্তি দূরত্ব বজায় রাখছে না, দোকানদাররা হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার করছে না বা দোকানে রাখছে না।

এই ক্ষেত্রে মিরকাদিম পৌরসভায় করোনা ভাইরাস ভয়াবহ আকারে ছড়িয়ে পরতে পারে ইতিমধ্যে অনেক এলাকায় এই ভাইরাস অল্প সংখ্যায় বিস্তার লাভ করছে, দিন দিন এর বিস্তার বাড়ছে গত কালের সভ্যতার আলো পত্রিকায় জেলা সিভিল সার্জন কর্তৃক স্বাস্থ্য বিবৃতির উপর প্রকাশিত তথ্যে জানা যায় একদিনেই মিরকাদিম পৌরসভায় ছয় জনের শরিলে করোনা ভাইরাস পজিটিভ পাওয়া গেছে। তাই মিরকাদিম পৌরবাসীর নিরাপত্তার স্বার্থে মেয়র মহোদয়কে আরও সতর্ক পদক্ষেপ নিতে হবে। সকলকে মুখে মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করতে হবে, কেহ মুখে মাস্ক না পড়লে তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিতে হবে, এই বিষয় আমাদের অনুরোধ মেয়র মহোদয় কাউন্সিলারদের নিয়ে একাধিক ভিজিটিং গঠন করে মুখে মাস্ক না পরা লোকদের কঠোরভাবে নিয়ন্ত্রন করতে হবে, প্রয়োজনে পৌরবাসীদের রক্ষায়  অবাধ্যদের আইনের আওতায় আনতে হবে, দৃষ্টান্তমূলক সাঁজার ব্যবস্থা নিতে হবে।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

Leave A Reply

Your email address will not be published.

%d bloggers like this: